মহামারিতে অভিভাবক হারিয়েছে ১৫ লাখ শিশু | সারাবিশ্ব | Aporup Bangla | বাংলার প্রতিধ্বনি
ঢাকা | রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১ আশ্বিন ১৪২৮
সারাবিশ্ব

মহামারিতে অভিভাবক হারিয়েছে ১৫ লাখ শিশু

অপরূপবাংলা ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৩ জুলাই ২০২১ ০২:৫৫ আপডেট: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১৫:১২

অপরূপবাংলা ডেস্ক | প্রকাশিত: ২৩ জুলাই ২০২১ ০২:৫৫


প্রতীকী ছবি

করোনাভাইরাস মহামারির প্রথম ১৪ মাসে বিশ্বজুড়ে ১৫ লাখ শিশু অভিভাবক হারিয়েছে। এই অভিভাবকদের মধ্যে রয়েছে শিশুদের বাবা-মা, দাদা-দাদি এবং এমন স্বজন যারা এসব শিশুদের লালন-পালনের দায়িত্বে ছিলেন। রয়টার্স ও নিউইয়র্ক টাইমসের খবর।

মঙ্গলবার (২০ জুলাই) বিখ্যাত মেডিকেল সাময়িকী দ্য ল্যানসেটে প্রকাশিত গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, করোনা শুরুর পর থেকে গত ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত এই শিশুরা এতিম হয়েছেন।

জাতিসংঘের জনসংখ্যা বিভাগ জানাচ্ছে, ওই শিশুদের বাবা-মা, দাদা-দাদি অথবা অন্যান্য স্বজনদের করোনায় মৃত্যুর এই তথ্য ২১ দেশ থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে। বিশ্বে এ পর্যন্ত করোনায় যত মানুষের মৃত্যু হয়েছে; তার ৭৭ শতাংশই ওই ২১ দেশে রেকর্ড করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্রের (সিডিসি) কোভিড-১৯ মোকাবেলা দলের সদস্য চিকিৎসক সুসান হিলিসের নেতৃত্বে একদল গবেষক করোনা এতিম শিশুদের বিষয়ে ওই গবেষণা করেছেন।

এক বিবৃতিতে সুসান হিলিস বলেন, বিশ্বে করোনায় প্রত্যেক দুজনের মৃত্যুতে অন্তত এক শিশু তাদের বাবা-মা অথবা অন্য পরিচর্যাকারীকে হারিয়েছেন। মহামারির প্রকোপ বাড়ায় এতিম শিশুদের সংখ্যা আরও বাড়বে।

মার্কিন এই চিকিৎসক বলেছেন, এই শিশুদের অগ্রাধিকার এবং ভবিষ্যতে অনেক বছর ধরে তাদের সহায়তা দেওয়া জরুরি হয়ে পড়বে।

গবেষক দলের আরেক সদস্য অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের লুসি ক্লাভার বলেছেন, আমাদের আরও দ্রুত পদক্ষেপ নিতে হবে। কারণ প্রত্যেক ২ সেকেন্ডে একজন শিশু তাদের পরিচর্যাকারী হারিয়ে ফেলছে।




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top